সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮

Basic Ali : Graphic Novel : Experience

বেসিক আলী’র ভৌতিক অভিযান পড়ে ফেললাম। এটা বেসিক আলী কে নিয়ে প্রথম ‘ফুলস্কেপ’ কাহিনী, তাই বেসিক আলীর অন্যান্য ডাইজেস্ট-এর চেয়ে এই বইয়ের প্রতি আলাদা আগ্রহ ছিল। শাহরিয়ার খান বেসিক আলী’র অগনিত পাঠককে খুশি করার যথাসাধ্য চেষ্ঠা করেছেন। এই কমিক্স নিয়ে গোছানো রিভিউ লেখার দুঃসাহস এই মুহূর্তে করছি না, তবে বেসিক আলী পড়ার অভিজ্ঞতা- আমার মতই বেসিক আলীর ভক্তদের সাথে শেয়ার করছিঃ

 


 

১. শাহরিয়ার খান, ‘বেসিক আলী’কে পরিবার, বন্ধুত্ব ও অফিস কেন্দ্রিক গতানুগতিক চরিত্র থেকে বের করে ঝুঁকি নেয়ার মত সিরিয়াস চরিত্র দিয়েছেন। উপন্যাসের বেসিক আলী, প্রথম আলোর ডেইলী কমিক স্ট্রিপের চিরচেনা বেসিক আলীর চেয়ে বেশী রোমান্টিক, মারকুটে একশন হিরো, রিস্ক টেকার, এডভেঞ্চারপ্রেমী। তবে বেসিকের ফাতরা দুষ্টুমী বাদ যায়নি। প্রথমবারের মত বেসিক আলীকে একদল সশস্ত্র ভিলেনের মোকাবিলা করতে হয়েছে। সব মিলিয়ে পাঠকরা একজন নতুন বেসিক আলীর সাথে পরিচিত হবেন।


২. উপন্যাসের মূল চরিত্রে বেসিক আর রিয়ার ভূমিকা বেশী, হিল্লোল অনেকটা পার্শ্ব চরিত্রে ছিলো। হিল্লোলকে যারা কখনো গার্লফেন্ডের সাথে দেখেননি, তারা এবার তা দেখতে পারবেন। এছাড়া মলি, তালিব, নেচার, ম্যাজিক, দখিনা থানার ইন্সপেক্টর ‘নরজুল’ ভাই, বাঙ্গু ব্যাংকের চেয়ারম্যান, দেলোয়ার ভাইদের আনাগোনা ছিল। রেগুলার কমিক স্ট্রিপের কয়েকটি আলোচিত চরিত্র উপন্যাসে আসেনি। বোধ করি, গল্পের প্রয়োজনে ঐ রেগুলার চরিত্রদের শাহরিয়ার খান উপন্যাসে আনেননি। 

৩. ছোট্ট স্পয়লারঃ উপন্যাসে শাহরিয়ার খান প্রথম বারের মত বেসিক আলীকে তার ফিকশানাল জায়গা-(দখিনা, বাদেকুশা) থেকে বের করে এনেছেন। বেসিক আলীর এই এডভেঞ্চারের বড় অংশ শ্রীমঙ্গলে ‘চিত্রায়িত’ হয়েছে। 





৪. পুরো কাহিনীটা কমেডির পাশাপাশি, এডভেঞ্চার, একশন, ক্ষেত্র বিশেষে থ্রিলারের প্যাকেজ। গল্পের প্যাটার্ন দেখে মনে হয়েছে এই কাহিনীকে অনায়াষে এক ঘন্টার একটি টেলিফিল্ম বা চলচিত্রের রূপান্তর করা যাবে। শাহরিয়ার খান হয়তো এমনই এক চিত্রনাট্যকে কমিক্স আকারে উপস্থাপন করেছেন। তার উপস্থাপনা অসাধারণ হয়েছে।


৫. শাহরিয়ার খান একবার কমিক্সের ‘ইংকিং’-কে বেশ ‘পেইনফুল জব’ বলেছিলেন। এই ‘পেইনফুল জব’ তিনি অনেক ধৈর্য্য এবং নিষ্ঠার সাথে করেছেন। যার প্রতিফলন পাঠকরা প্রতিনিয়ত ফেসবুকের পাতার পাচ্ছেন, এবার পাবেন বেসিক আলীর প্রিন্টেড ভার্সন-এ। প্রতিদিন পত্রিকা পড়ার আগে ফেসবুকে লগ-ইন করি বেসিক আলীর রঙ্গীন সংস্করণ পড়ার জন্য। কারণ, প্রথম আলোর সাদাকালো বেসিক আলীর চেয়ে রঙ্গীন বেসিককে আমি বেশী পছন্দ করি। সেই রঙ্গীন বেসিক আলী আরো ঝলমলে রূপ নিয়েছে, প্রিন্টেড ভার্সনে।



সব মিলিয়ে বেসিক আলীকে নিয়ে ‘চিত্রিত’ ৯২ পৃষ্ঠার গ্রাফিক নভেল আমাকে নিরাশ করেনি। Cheers!
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন