বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারী, ২০১২

প্রসঙ্গঃ হ্যাকার

বাংলাদেশী হ্যাকাররা সীমান্তে বিএসএফ এর অমানবিক, বর্বরোচিত হামলা বন্ধের জন্য একের পর এক ইন্ডিয়ান সাইট হ্যাক করে যাচ্ছেন, এছাড়াও টিপাইমুখ ইস্যুতে জনসচেতনতা এই হ্যাকিং এর উদ্দ্যেশ্য  বলে হ্যাকাররা তাদের হ্যাক করা সাইট গুলিতে জানান দিচ্ছেন। পত্রিকার বিভিন্ন সুত্র আর বিডি রেড হ্যাট হ্যাকারদের ফেসবুক ফ্যান পেজ থেকে জানা যায়, হ্যাক হওয়া সাইটের সংখ্যা ২০০০০ চেয়ে বেশী[৪]। যদিও বেশীর ভাগই ব্যক্তিগত ও বাণিজ্যিক কম্পানীর ওয়েব পেজ,পর্ণ সাইট; এদের মধ্যে বি এস এফ এর(bsf.nic.in) এর সাইটও রয়েছে ।[১]

এই সাইবার যুদ্ধ, রীতিমত সবার মাঝে আলোড়ন তুলেছে। আমাদের বেকুব সরকার যথারীতি এই ঘটনাতেও স্বাধীনতাবিরোধী ও ইসলামি সন্ত্রাসীদের গন্ধ পেয়েছেন। [২] একদল সুবিধাবাদী এই হ্যাকিংকে আন্তর্জাতিক রুপ দেওয়ার জন্য পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, রাশিয়া আর ইসরায়েলকেও জড়িয়ে গুজব রটিয়েছে। প্রসঙ্গত বলতে হয় পাকিস্তানি হ্যাকাররা অনেক আগে থেকে ইন্ডিয়ান সাইট হ্যাকিং এর সাথে যুক্ত, এর সাথে সমসাময়িক বাংলাদেশী হ্যাকিং এর কোন সম্পর্ক নেই।[৩]

ব্যাপারটা একটা ফ্যানাটিক পর্যায়ে চলে এসেছে, কেউ বাহবা দিচ্ছেন, অন্ধ বেকুবরা অযথা গন্ধ পাচ্ছেন। অনেকেই মুল ব্যাপারটাকে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছেন। হ্যাকারদের জন্য সাইট হ্যাকিং করার কাজটা গেম খেলার মতই আনন্দের, অনেক হ্যাকাররা হ্যাকিংকে আসক্তির পর্যায়ে নিয়ে গেছেন। নতজানু পররাষ্ট্র নীতির কারনে দেশের মানুষ রাষ্ট্র ব্যবস্থার উপর আশাহত, তখন এই শৌখিন হ্যাকিং আমার কাছ থেকে বাহবা পায় কারন এই হ্যাকিং এখন আমাদের বাংলাদেশের মানুষের জন্য প্রতিবাদের মাধ্যম। তবে পরিকল্পনা বিহীন এই হ্যাকিং নিয়ে মিডিয়া আর মানুষের আগ্রহ বেশীদিন থাকবেনা। খোদ ইন্ডিয়ান সরকার এই ব্যাপার নিয়ে খুব বেশী চিন্তিত বলে মনে হয় না।

এমেরিকা, চীন, ইসরায়েল এর গোয়েন্দা সংস্থা গুলি,তাদের জাতীয় স্বার্থে  এই ধরনের হ্যাকারদের পৃষ্টপোষকতা করা থাকে। বাংলাদেশের মত দেশের এই ধরনের পৃষ্টপোষকতা আশা করা, বালিতে 'ইয়ে' করার মত, কিন্তু তারপরও নিজেদের সাইবার স্পেস কিভাবে সুরক্ষিত রাখা যায়, এই ব্যাপারে তাদের সহযোগিতা কাম্য। হ্যাকারদেরকে ধন্যবাদ। অল্প সময়ের জন্য হলেও তারা বাংলাদেশকে সাইবার বিশ্বে আত্ম সম্মান এনে দিয়েছেন। বাহবা দেই হ্যাকারদের, আর যারা এই ঘটনাকে পুজি করে, ফায়দা লোটার ধান্দা করছেন, তাদের জন্য অনিষ্ট কামনা করি।
--
১. প্রথম আলো ১৪-০২-২০১২
২. BLITZ
৩. http://www.nagorikblog.com/node/7597
৪. times of india
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন