রবিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০১১

অলীক

শুভ্র কখন এই চৌরাস্তায় এসে দাড়িয়েছে , মনে করতে পারছে না | চারদিকে অনেক ব্যস্ত মানুষ আর যান বাহনের ভিড়, কোনো কিছুই শুভ্রর মনে প্রভাব ফেলছে না | আজ এই রাস্তার মোড়টা বেশি সংকীর্ণ আর সীমাবদ্ধ লাগছে | এই চৌরাস্তা হয়ে শুভ্র অহরহ যাতায়াত করে | এইখানে , এই মোড়ে এসে দাড়ানোর ব্যাপারটা অস্বাভাবিক নয়, তারপরও তার এই হঠাৎ আবির্ভাব শুভ্রর মনে খুব গাড়ও ছাপ ফেলেছে | শুভ্র আবারও মনে করার চেষ্ঠা করলো সে কিভাবে এই চৌরাস্তায় এলো, মনে করতে পারলো না | 

শুভ্রর হাতে একটা জলন্ত সিগারেট আছে | এই অবাক সময়ে ধোঁয়া দেখতে ভালো লাগছে না | সিগারেটটা ফেলে দিতেও ইচ্ছে করছেনা | সময় কাটাতে হবে | এই মুহুর্তে পরিচিত কাউকে পেলে ভালো হতো , এই ব্যাখ্যাহীন সময়টা ভালো ভালো কাটতো | এই মোড়ে আসার আগে কোথা থেকে সিগারেট কিনেছে, তাও যদি মনে করা যেত | এই মোড়ে আগমনের পূর্ব ঘটনার সাথে নিশ্চই সিগারেটের যোগসূত্র আছে ! মনে করা যাচ্ছে না | [সিগারেট + চৌরাস্তায় আগমন = ?!] লজিক কাজ করছে না | মাথায় তীক্ষ্ণ ব্যাথা অনুভব হচ্ছে |



আকাশ কুয়াশাচ্ছন্ন, চারদিক ফ্যাকাশে , রংহীন | সবাই ব্যস্ত হয়ে ছুটোছুটি করছে, কেউই শুভ্রকে খুব ভালো ভাবে খেয়াল করছে না | আহা ! পরিচিত কাউকে যদি পাওয়া যেত ! নিজেকে খুবই একা লাগছে | এত লোকের ভীড়ে শুভ্র হঠাৎ তার প্রিয় মুখ জাহরাকে দেখতে পায় | জাহরাকে দেখতেই শুভ্রর মানুষিক বিষন্নতায় ভাটা পড়তে শুরু করে | জাহরা বেশ দুরে দাড়িয়ে আছে , রাস্তার দিকে নজর করে কিছুর জন্য অপেক্ষা করছে | শুভ্র জোরেশোরে ডাক দিলো - 'জাহরা, এই জাহরা '| মনোযোগ আকর্ষণের জন্য হাত উচিয়ে ইশারা করলো ,শুভ্র ; কিন্তু জাহরা মুখ ফিরিয়ে শুভ্রর দিকে তাকাচ্ছে না | পা দুটো অসাড় হয়ে যাচ্ছে, শুভ্র জাহরার কাছে যেতে পারছেনা | বুকে মৃদু ব্যাথা অনুভব হচ্ছে |


শুভ্র পারছেনা জাহরাকে কাছে ডেকে আনতে | বোবা বোবা লাগছে , নিজেকে অসহায় আর বোকা মনে হচ্ছে | এই পিচ ঢালা পথে এত বহনের ভিতর থেকে একটা বড় আকারের বজরা এগিয়ে আসতে দেখা যাচ্ছে | রাস্তাটা পিচ ঢালাই তো ! জাহরাকে  এই বড় নৌকাটাকে থামানোর ইশারা করতে দেখে শুভ্র | বজরাটা ঠিক জাহরার সামনে এসে দাড়ায় | আরও অনেক মানুষের সাথে জাহরাও বজরায় উঠে | বাদবাকি যানগুলির মাঝ দিয়ে বজরাটা চলে যাচ্ছে | পা দুটি অসাড় হয়ে আছে , নৌকাটাকে থামানো গেলনা | কেউই শুভ্রর কোথা শুনছেনা | কুয়াশা কেটে যাচ্ছে | আলো তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে| আলোর ঝলকানিতে তাকানো যাচ্ছে না | শুভ্র চোখ বন্ধ করে ফেললো | 

ধীরে ধীরে চোখ মেললো শুভ্র | সে অনেক ঘেমেছে ,শরীর থেকে জ্বর নেমে গেছে | এইতো জাহরা ! প্রেমময়ী চাহনি নিয়ে পানির গ্লাস হাতে সামনে বসে আছে | 
....
একই সাথে নাগরিকে প্রকাশিত |
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন