সোমবার, ৭ মার্চ, ২০১১

Shark Tale - আমরা হাঙ্গর বলছি

শিরোনামে যা দেখলেন তাই নিয়াই এই পোস্টে কথা হইবো | আমরা সত্যিই হাঙ্গর, মানুষ না| মানুষেরা আমাগোরে যেমনে  প্রচার কৈরা রাখসে তাতে আমাদের সম্পর্কে আমজনতার সেন্টিমেন্ট নেগেটিভ হইয়া গেছে, বাজে প্রচারণার জন্য আমাগো সুনাম মানুষের কাছে 'অপু আর প্রভার'মতো| Jaws(1975) নামের একখান সিনেমার সিরিজ দেইখা আমি নিজেই তিন রাইত ঘুমাইতে পারিনাই, যে এই সিনেমা বানাইসে তার পাছায় একটা দাঁত বসাইতে পারলে মনে শান্তি পাইতাম|এইখানে আইছি আপনাগোর মাঝে হাঙ্গর জাতিরে নতুন কৈরা পরিচয় দিয়ে, যাবতীয় ভূল ভ্রান্তির অবসান করতে-

১. আমরাও মাছ
অনেকেই মনে করে আমরাই তিমি আর মানুষের মতো স্তন্যপায়ী| মোটেও না, আমরাও মাছ| আমরা থাকি পানির নিচে ৭০০০ থেকে ১০০০০ ফিট গভীরে|তিমির মতো আমরা কিছুক্ষণ পর পর পানির উপরে উইঠা বাতাস লইনা , আর বাকি মত্সকুলের মতই আমরাও পানির নিচে আমাগো কনকো(Gill)দিয়ে শ্বাস লই| আমরা যেহেতু পানির উপরেই উঠিনা, তাই আমরা আপনাগোর মতো দ্বিপদী লেজহীন প্রানীদের কোনো ক্ষতি করিনা |

চিত্র: Hammerhead Shark
২.পুরানা বাসিন্দা
৪৫০ মিলিয়ন বছর আগে থেইকা পৃথিবীর সাগর মহাসাগরে আমরা বিচরণ করতাছি, এই হিসাবে ডাইনোসরেরা আমাগো জুনিয়র, আর মানুষরা....

৩. আমাগো বডির হাড্ডি, রূপচান্দা মাছের মতই নরম, আপনাগো কানের আর নাকের তরুণাস্থির (Cartilaginous) মতই তুলতুলে! সুতরাং কোনো সিনেমায় যদি দেখেন কোনো হাঙ্গর গায়ের জোরে হাল্কের মতো ধাক্কা দিয়ে মাছ ধরার নৌকা উল্টাইয়া ফালাইতাছে, বুঝবেন ঐখানে ফটোশপের আর স্পেশাল এফেক্টের কেরামতি আছে (!)

৪.দাঁতের হিসাব
মানুষের মতো আমাগো দাঁত মাত্র দুই পাটি না, উপর আর নিচের চেয়ালে আমাগো কয়েক সারি দাঁত থাকে | সামনের সারির কোনো দাঁত পইরা গেলে পেছনের সারি থেইকা দাঁত আইসা আবার সামনের সারিতে জায়গা কৈরা লয়|মানুষের মতো আমরা ফোকলা হইয়া যাইনা| সারাজীবনে আমাগো ২০,০০০ হাজারের বেশি দাঁত উঠে , তারপরও হেপিডেন্ট চুইংগামের এডে কিভাবে গরু আর বানর চান্স পাইয়া যায় বুঝিনা !
৫.আমাগো সাইজ
আপনাগোর সমাজে যেমুন সার্কাসে কাজ করা বামুন থেইকা শুরু কৈরা ৭ ফিট ১১ ইঞ্চি লম্বা বাস্কেটবল খেলোয়ার আছে,তেমুন  আমগোর মাঝেও ৭ ইঞ্চি[Dwarf Lantern Shark] থেইকা শুরু কৈরা ৪০ ফিট লম্বা তিমি সাইজের হাঙ্গর আছে |

৬.অভিযোজন ক্ষমতা
মানুষের লগে এই জায়গায় আমাগোর অনেক মিল আছে , মানুষ যেমন বাইচা থাকনের লাইগা মরুভূমি থেইকা শুরু করা মেরু অঞ্চলের বরফের উপরে ঘর বানাইসে, আমরাও তেমনি খাওন যোগাইতে পানির নিচে যে কোনো জায়গায় দ্রুত খাপ খাওয়াইতে পারি [Bull shark  লবনাক্ত ও মিঠাপানি-দুই পরিবেশেই পাওয়া যায়]| 

চিত্র: Great White Shark
৭. আয়ুষ্কাল
আমরা কেউ কেউ[spiny Dogfish Shark] ১০০ বছরের অধিককাল বাঁচি, তয় আমাগো গড় আয়ু ২০ বছর|

৮.আমরা পেটুক না
আমরা মানুষের মত খাদক না যে ক্ষুদা লাগুক আর না লাগুক খাওন দেখেলেই খাইয়া ফালাই, আমাগোর ক্ষুদা লাগলে আমরা খাওনের সন্ধানে যাই, আমরা খুবই ভালো শিকারী|পেট খালি থাকলে আমরা নিজেগরেই খাইয়া ফালাই তবুও মানুষের মতো পচা স্বাদের প্রাণী খাইন| মানুষের মতো আমাগো মাথা গোল না, বরন্চ লম্বা আর সুক্ষ | মানুষের মতো বুদ্ধি(নাকি বদবুদ্ধি !)মান না হইলেও আমরাও পরিবেশ সচেতন |

৯.সামাজিকতা
বেশির ভাগ সময় আমরা একলা শিকারে বাইর হইলেও মাঝে মাঝে আমরা একসাথে শিকার করি, আমাগো পছন্দের খাদ্য ছোট মাছকে আমরা এক সাথে তাড়া কৈরা উপযুক্ত স্থানে নিয়া যাই| আমরাও আমাদের শিশুদের সাথে খেলি, আনন্দ করি|

১০.নিদ্রা
আমরাও ঘুমাই|মানুষের মতো দুই চোখ বন্ধ কৈরা ঘুমাই না, আমাগো চোখ সবসময় খোলা থাকে| ঘুমানোর সময় আমাগো মস্তিস্কর অর্ধেক আমরা জাগনা রাখি|

১১.আমাগো চামড়া 
মানুষেরা মাঝে মাঝে একজন আরেকজনেরে গন্ডারের চামড়ার লগে তুলনা করে|কিন্তু আমাগো চামড়া গন্ডারের চেয়েও মোটা ও খসখোসা| শুধু গন্ডার না , পৃথিবীর প্রাণীকুলের মধ্যে সবচেয়ে মোটা চামড়া আমাগোরই জ্ঞাতি ভাই Whale Shark এর (প্রায় ১০ ইঞ্চির চেয়ে বেশি ঘন)|চামড়া কস্কসা হওয়ার জন্য একটা সময় আমাগো চামড়া sand paper হিসেবে ব্যবহার হইতো |

১২.বংশ বিস্তারের ব্যবস্থা
আমরা তিন ভাবে বাচ্চা পয়দা করতে পারি-
১২.১ মানুষের মতো (Viviparity)
১২.২ মায়ের পেটে থাকা ডিম থেইকা(Ovoviviparity), অথবা
১২.৩ অথবা ডিম পারার পর সেই ডিম থেইকা (Oviparity)

আমাগো কোনো জ্ঞাতির একলগে ১০০টা বাচ্চাও একসাথে হইতে পারে| মানুষের ছাউয়ের মতো আমাগো পোলাপাইন পালন লাগেনা , দুনিয়ার আলো দেক্ষণের লগে লগেই ওরা ডাঙ্গর হইয়া যায় |

কিন্তু আপনারা মানুষেরা আমাদের যত্রতত্র মাইরা আমাগো বংশ নাই কৈরা দিতাছেন, যেখানে সেখানে বর্জ্যতেল ফালাইয়া আমাগোর মাঝে কেন্সারের জীবানু ঢুকাইয়া দিতাছেন|মানুষের খোচা ছাড়া কোনো হাঙ্গর মানুষের পাছে দাঁত বসাইছে, এইরকম রেকর্ড বছরে ১০০ চেয়ে কম|আমাগো অনেক প্রজাতি এহন নাই হওনের পথে, অথচ আমাগরে খোচা না দিলে আমরা কোনো মানুষরে কামড় দেইনা| 

আমরা মানুষ নই| 'পাতিলের একটা ভাত খারাপ, তাই বেবাকটি খারাপ'-মানুষের মতো আমরা এইরকম মনে করিনা|কিছু কিছু মানুষরে আমরা ভালো পাই, যেমন গ্রিস দেশের এরিস্টটল|এই লোক ২৩০০ বছর আগে আমাগরে নিয়ে গবেষণা কৈরা মানব সমাজে আমাগো ভালো চরিত্র সম্পর্কে কিছু জানান দিছে| তারে শত কোটি সালাম |
------------
মূলসুত্র | নাগরিকয়ে প্রকাশিত
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন