শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১০

সাকা (কমেডি)শো ডাউন : ভাবনা ও আহবান

বর্তমান সরকারের জন্য 'যুদ্ধপরাধীদের বিচার' বড় এজেন্ডা | এই এজেন্ডা গেলো নির্বাচনে আওয়ামীলীগকে জয়ী করার জন্য মহৌষধের কাজ করেছে কারণ এই একটা এজেন্ডা  নতুন ভোটার বিশেষ করে যুব-ভোটারদের সবচেয়ে বেশি আকৃষ্ট করেছে| বেশ কয়েক জন বিতর্কিত যুদ্ধপরাধী গ্রেফতারও করা হয়েছে, তার পরও অনেক দাগী আসামি বাইরে রয়ে গেছেন, কারণ তাদের বিরুদ্ধে  এখনো চার্জশিট গঠণ চলছে| যদিও বিচার কাজ নিয়ে এই সরকারের অনেক টালবাহানা চলছে, যা মোটেও কাম্য নয় | 

বিতর্কিত অপরাধীদের মধ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (BNP)এর সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরীর (সাকা) নাম সর্বাগ্রে আসে, যিনি এখনো বিচার প্রক্রিয়ার বাইরে আছেন, ঢিমে তালে হলেও তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি বাংলাদেশের ইলেকট্রনিক মিডিয়াগুলোতে নিয়মিত আলোচনা হচ্ছে| সাকা খুব  ভালো করেই জানেন তাকে ১-১১ এর পর আবারও জেলে যেতে হবে সাকা Piglet হলে কি হবে, এই হারাম খোরেরও বিচারের কথা শুনলে আত্মা কাপে|


আজ (২০-১০-২০১০)রাত ৯ তায় ATN NEWS চ্যানেলে খালেদা জিয়ার কেন্টনমেন্টের বাড়ি নিয়ে সাকার খিস্তি খেউর এর সাথে তাকে গ্রেপ্তার হলে কি হবে এই ব্যপার নিয়েও কমেডিয়ানদের মতো খে: খে: করতে দেখলাম |  সাকার এরকম বেপরোয়া আচরণ এখন আর আগের মতো ধর্তব্যে নেই না, এটা মনে হয় আমার মতো অনেকের কাছেই একটা স্বাভাবিক বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে| এই বিষয় নিয়ে লেখা লেখি করা মানে বৃথা সময় নষ্ট করা| তাই সাকার এহেন কথাবার্তায় অবাক হইনি|সাকা piglet এর এই কমেডি শোডাউন দেখে মনে মনে হাসলাম | দেশের খেটে খাওয়া মানুষগুলোকে  বোকা বানানোর জন্য, সাকা কি না করছে..!বিরক্ত হলাম , যখন দেখলাম কয়েক জন তরুণ-যুবক সাকার পেছনে দাড়িয়ে বোকার মতো সস্তা হাসি দিয়ে নোংরা জনপ্রিয়তা বাগানোর চেষ্ঠা করে যাচ্ছে | এই নতুন প্রজন্মের পাহারাদার গুলোকে আগে খুব কম দেখেছি বলে মনে হয়| এই নব্য 'সাকা'হারীদের* প্রথম খেয়াল করলাম|হ্যা, ওরাও এই দেশের সন্তান |

হঠাৎ করেই সাকা এই গ্রুপটিকে পেছনে দার করিয়ে দেননি, তিনি এখন যোদ্ধপরাধি মামলায় গ্রেফতার এড়ানোর জন্য আন্দোলনের হুমকি দিয়েছেন, লোক দেখানোর জন্য হলেও পেছনে কিছু 'সাকা'হারি চাই| বদমাশটার তো কালো টাকার অভাব নাই, বাংলাদেশেও হুজুগে ফেউ দেওয়ার লোকের অভাব হয় না |

সাকা ঠান্ডা মস্তিস্কের এবং খুবই সংগঠিত অপরাধী| সে খুব ভালো করেই জানে কিভাবে Mind Control theory ব্যবহার করতে হয় , এই তরুণ গুলি তার সেই Theory এর সফল গিনিপিগ|এই থিওরির সবচেয়ে সফল প্রয়োগ করেছে , জামাতে ইসলামী এবং ছাত্র শিবির| শিবিরের অনেক কর্মী নির্দিষ্ট কিছু বইয়ের বাইরে অন্য কিছু পড়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত|

সরাসরি ওই তরুণদের দোষ দিচ্ছিনা, কারণ এমন হতে পারে যে, তথ্য জানার অধিকার আছে- এটা তারা জানেইনা(প্রচলিত আইনে এই ধরনের 'না জানা' এক ধরনের গুরুতর অপরাধ)| এদের মতো Lab sample কে তত টুকুই জানতে দেওয়া হয় , যতটুকু সুবিধাজনক | হয়তো এই তরুণ যুবকদেরই কোনো নিকট আত্মীয়কে সাকা নরপশুর হাতে ৭১রে খুন হয়েছেন কিন্তু সেটা জানতে এবং এই নরপশুকে ঘৃনা করতে আগ্রহী নয় |

তারপরেও ধিক্কার এই নব্য piglet গুলিকে ; তাদেরকে যারা 'সাকা'হারি বানিয়েছেন, তাদের ; কারণ এই অবাধ তথ্য প্রযুক্তির যুগেও নির্লজ্জের মতো দৈনিক ২০০ টাকার লোভে(এইটা আমার আন্দাজ) তারা সাকার মতো একটা নরপশুর পেছনে দাড়িয়ে গরুর মতো হাসে |

এখনো সময় আছে , সাকাকে পাহারা না দিয়ে উল্টো তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করুন |কেন ?
কারণ , সাকা মরে যাওয়ার পর এই নব্য রাজনৈতিক কর্মীরা সবাই এক সাথে পরিত্যক্ত হবে, এদের দেখার কেউ থাকবে না |
*এইখানে 'সাকা'হারি দেরকে কেউ আবার সবজিভুক ভাববেননা যেনো.
--------------
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন